লিটলম্যাগ তোরণের উচ্ছ্বাস জবিতে:এ যুগের সম্ভাবনা...

একটা সাজানো গেট, ভুলে যাবেন না যেন, গেটটা কিন্তু বিয়ের। সে গেট দিয়ে
প্রবেশের পর বিয়ে ক্ষণটিতে, বিয়েবাড়িতে শুধু উচ্ছ্বাস আর অনাবিল আনন্দ,
ভোগ-উপভোগের হাজারো উপাদান। একেতো বাহারি খাবার, তার উপর বরময় খুনসুটি,
পটকার ঠুসঠাস। বরেণ্যদের ফোকলা দাঁতের লালমুখো হাসি,হাসির হা...হা বাধ মানে
না। কেউ অবশ্য সীমারেখাও টানে না সে সময়টাতে। সহজ বাংলায় বিয়েবাড়ির তোরণ,
যাকে ঘিরে বিয়েবাড়ির সব আকর্ষণ, কখন বর আসবে আর তাকে আটকানো হবে তোরণের
লালফিতায়।

সে তোরণটি এখন আলোচিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে। আর সে আলোচনার দৈর্ঘ্য
কিন্তু জগন্নাথের সীমা ছাড়িয়ে তেপান্তরের পথে... এ যে জগন্নাথ
বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব সন্তানদের আরেক অর্জন। তবে সেটা কিন্তু বিয়েবাড়ির
না, নিখাদ সাহিত্য বাড়ির তোরণ। যে কেউ চেখে দেখে প্রমাণ নিতে পারেন।

ভাঁজ খুলে, তোরণ ঠেলে ভিতরে প্রবেশ করলে শুধু পাওয়া যাবে বাংলা
সাহিত্যের নতুনত্বের ছোঁয়া। মুগ্ধ হবেন পাঠক, বিমুগ্ধ নয়ন তোরণের প্রতিটি
পৃষ্ঠা শেষ না হওয়া পর্যন্ত একবারও পলক ফেলবে না। ঝুম চষে বেড়াবে কালো
অক্ষরের মায়াবি জগতে, শব্দ শব্দ খেলার ঋদ্ধ পৃথিবীতে,মননে সৃজন বীজের নিপুণ
গাঁথুনিতে...। গল্প, অনুবাদ গল্প, কবিতা, কবিতাগুচ্ছ, স্মৃতিকথা আর
প্রবন্ধের সমাহারে থরে বিথরে সাজানো হয়েছে এবারের তোরণ পর্ব। সেসব পর্বের
সারথি হালের ক্রেজ নির্মলেন্দু গুণ, আসাদ চৌধুরী আর আল মুজাহিদী থেকে শুরু
করে এ যুগের তপু রায়হান, বাপ্পী জুয়ার্দার আর ইমরান মাহফুজরা। তাদের
সুনিপুণ লেখনি গুণে লিটলম্যাগটি প্রতিটি পরতে পরতে গোলাপ কি বেলি হয়ে
ফুটেছে। সুবাসে সুবাসে মোহিত করছে পঠনের প্রশস্ত হৃদয়।

তরুণ সম্পাদকের সম্পাদনা গুণে সাহিত্যম্যাগটি হয়েছে আরও প্রাণবন্ত।
সম্পাদক প্রকৃতির কবি হুসাইন আজাদ। সবুজ ক্যাম্পাসের প্রিয় বুদবুদ কবি।
সম-সাময়িক তরুণ কবিদের কাতারের অগ্রণী সৈনিক। এখনই তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন
কাব্য ভাষা আর উপমার একটা নিজস্ব জগত্। হয়তো শামসুর রাহমান-আল মাহমুদ
পর্বের পর আমরা বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে আবার শুনব হু-আজাদদের নাম...।

সাহিত্য পত্রিকাটি পরিবেশন করছে শাহবাগের লিটলম্যাগ চত্বর। তো আর
অপেক্ষা বা প্রতীক্ষা কেন? হুসাইন আজাদের সাহিত্য বাড়িতে বেড়ানোর স্বাদ
নিতে চলে আসেন সবাই। আর এ তোরণটি কিন্তু উত্সর্গ করা হয়েছে জবির গণযোগাযোগ ও
সাংবাদিকতা বিভাগের কবির সব বন্ধুদের। আসলে এ বিভাগটির ভালবাসা আর
পরিশ্রমের ঘাম তোরণের গায়ে লেগে আছে আষ্টে-পৃষ্ঠে, লেপ্টে আছে হূদয়ের খোদিত
পটে। যারা তোরণে প্রবেশ করতে চান কিংবা আগামি সংখ্যায় ভাল লিখে লেখক হতে
চান তারা কিন্তু যোগাযোগ করতে পারেন- সেমিনার রুম, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা
বিভাগ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। তার বার্তায়- hussainazad.jnu@gmail.com

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 2 (টি রেটিং)

চলুন।

-

"নির্মাণ ম্যাগাজিন" ©www.nirmanmagazine.com

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 2 (টি রেটিং)