আমি ফকির [ একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে ]

sl

   

এক   ধনী  আরব    খুব   অসুস্থ    হয়ে   পড়লেন  ।     এই   অবস্থায়  তিনি বলতে লাগলেন  , আমি  ফকির , আমি ফকির । 

  

পরিবারের সবাই  তো  অবাক ।  ছেলেমেয়েরা   ভাবলো ,  বাবার  হয়তো   শরীর খারাপ  হওয়াতে মাথা ঠিকমতো  কাজ  করছে না  ।  তাই  তিনি    ভুলে  গিয়েছেন  তার কত সম্পদ আছে ।  

   তারা  বাবাকে  ধরে  কামরার বাইরে  এনে   প্রাসাদসম  বাড়িটি দেখিয়ে বললো ,  বাবা  দেখো ,  তুমি ফকির না ।  তুমি  কত  বাড়িতে  থাকো । এরকম  বাড়ি  তোমার  আরো অনেক   আছে ।  ব্যাংকে  তোমার  কোটি   কোটি টাকা  আছে ।  কিন্ত্ত  বৃদ্ধ  তারপরও  বারবার বলতে  লাগলেন , আমি ফকির , আমি ফকির । 

       সবাই  বিভ্রান্ত  হলো , কী  হচ্ছে  বুঝতে না পেরে  তারা    এলাকার  একজন  ধার্মিক   ব্যক্তিকে  ডাকলেন    ।     বৃদ্ধের  সাথে   কিছু সময় কাটিয়ে    ধার্মিক  মুসলমানটি  বুঝতে  পারলেন   বৃদ্ধ  আসলে  কী  বোঝাতে চাইছেন  ।   

  অর্থ  রোজগারে    এই  আরব  এত  ব্যস্ত  থাকতেন যে  পরকালের  কথা  তিনি  ভুলেই গিয়েছিলেন  ।    

 তিনি যা চেয়েছিলেন  তা পেয়েছেন  -   অঢেল  সম্পদ ,  গাড়ি , বাড়ি , সংসার , সন্তান  কোনকিছুরই  অভাব  নেই  তার    - অভাব   শুধু   পরকালের  জীবনের জন্য  অতি  দরকারী  ভাল  আমলের  ।  পরকালে    কাজে  আসবে  এমন  ভাল  কাজ  তিনি   তেমন  কিছুই  করে  যেতে পারেন  নি ।  

 দুনিয়ার  ব্যস্ততায়   তিনি   কখনো সময়  পান  নি  আল্লাহর  কথা  ভাবার ।     অনন্তকালের  জীবনের  সুখের  চেয়ে  তিনি  অল্প দিনের  দুনিয়ার  ভোগ -  বিলাসকে বেশী  গূরুত্ব  দিয়েছেন  সবসময়। 

আজ   মৃত্যুর  মুখোমুখি   দাড়িয়ে  তাই  তিনি  আফসোস করছেন , আমি  ফকির  , আমি ফকির  বলে ।  মারা যাওয়ার সময়েও  এই  বৃদ্ধের মুখে  ছিল  এই  আফসোস  -  আমি ফকির ।      আমাদের  জীবনের একটা বড়  সময়  নষ্ট  হয়   কত না অর্থহীন  কাজে ।  আজ  থেকে    আমাদের  আর  এক মিনিট  সময়ও   আল্লাহর কথা না  ভেবে অপচয়  করা উচিত  হবে  না ।   আল্লাহর  স্মরণ  থেকে  যে  যত  উদাসীন  হবে   , পরকালে  সে হবে ততটাই  বিপন্ন ।     

 আমরা  কি  অনন্তকালের  জীবনে  ধনী  হবো  না ?    হে  মুমিনগণ  ;  সম্পদ  ও  সন্তান  যেন   তোমাদেরকে  আল্লাহর  স্মরণে   উদাসীন  না করে , যারা  উদাসীন হবে তারাই  তো  ক্ষতিগ্রস্থ  (  সুরা  মুনাফিকুন ;  ৬৩ :৯ )  ।   প্রাচুর্যের  প্রতিযোগিতা  তোমাদেরকে  মোহে  আচ্ছন্ন  রাখে ,   এমনি  করেই  ( ধীরে ধীরে )  তোমরা  কবরের  কাছে  গিয়ে  হাযির  হবে 

(  সুরা  তাকাসুর ;  ১০২ : ১-২ )

 

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

অামাদের সবার শিক্ষা গ্রহণ করা উচিত।

-

 

পৃথিবীটা আসলেই যে একটা পরীক্ষা ক্ষেত্র, এরূপ বিভিন্ন ঘটনা থেকেও তার প্রমাণ মেলে।

এখানে যা মনোরম, তা অর্জনের জন্য আমরা ছুটে বেড়াই। অথচ এই মনোরমের আড়ালে রয়েছে দৈন্যতা। আর এখানের যে পবিত্র দৈন্যতায়ও রয়েছে মহাসম্পদ; যা আমরা বুঝতে পারি না।

এমন ধারার গল্পের জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

এ কথায় অসাধারণ।

-

সূর আসে না তবু বাজে চিরন্তন এ বাঁশী!

Posted Image

কষ্ট করে পড়ার জন্য  ও মন্তব্যের   জন্য সবাইকে  ধন্যবাদ ।

আসন্ন রামাদান  মাসসহ সারা বছরই যেন   আমরা   বেশী করে  নেক  আমল  করতে পারি , আমীন ।

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)