সত্য বলা, চলা ও প্রচারই হোক বিসর্গের ভাষা...

উন্নয়নের পথে একধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ

অবকাঠামোগত
উন্নয়নের মধ্য দিয়ে বর্তমান বিশ্বে একটি দেশ ক্রমাগত অপর একটি দেশকে ছাড়িয়ে
যাচ্ছে।  কেননা যে  দেশ অবকাঠামোগত দিক  থেকে যত  বেশি আধুনিক ও উন্নত, সে  দেশ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ঠিক ততটাই এগিয়ে। এদিক থেকে উন্নত দেশগুলোর থেকে 
বেশ পিছিয়ে থাকলেও, বর্তমান সরকার বিভিন্ন
প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে শক্ত অবস্থানে নিয়ে

আপনার রেটিং: None

|^| আমি মদীনাকে হারাম ঘোষণা করেছি

আল-লূ'লূ' ওয়াল মারজা-ন

>>> ভালোভাবে দেখার জন্য নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

কোরবানির পশুর হাট

প্রতিবছরের মতো এবারও রাজধানী ঢাকায় পর্যাপ্তসংখ্যক পশুর
হাট প্রস্তুত করা হয়েছে। দুই সিটি করপোরেশনের মধ্যে দক্ষিণে ১৩টি ও উত্তরে আটটি পশুর
হাট বসছে। রাজধানীর পশুর হাটগুলোর একটি বাদে সব কটিই স্থায়ী। এসব হাটে পশু আসতে শুরু
করেছে। উৎসাহী ক্রেতাদের অনেকেই হাটে গিয়ে কোরবানির পশু দেখে আসছেন। মূল কেনাবেচা এখনো
শুরু হয়নি। দুই সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে হাসিল নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। রাজধানীতে
এবার ৯টি হাট বেড়েছে। এতে কোরবানির পশু কেনার ব্যাপারে নগরবাসীর ভোগান্তি অনেক কমবে।
তবে এবার হাটে সিসি ক্যামেরা ও জাল নোট শনাক্তকরণ যন্ত্রসহ আনুষঙ্গিক সুবিধা নিশ্চিত
করার দায়িত্ব ইজারাদারদের। রাজধানীর পশুর হাটগুলোয় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কোরবানির
পশু আসে। দেখা যায় কোরবানির ঈদ সামনে রেখে কিছু মহল প্রতিবছর সক্রিয় হয়ে ওঠে। একটি
চক্র হাটে জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়। এই জাল টাকা চিনতে না পেরে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয় পক্ষই

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

যুলহাজ্জার প্রথম দশক, সওম সাধনা, কুরবানী এবং ঈদ

আসসালামু আলাইকুম।

গতকাল সোমবার ২১শে আগষ্ট ২০১৭ ইংরেজী এবং ২৯শে যুলক্কা'আদাহ্ ১৪৩৮ হিজরী তারিখে সউদী আরবের কোথাও চাঁদ দেখা যায়নি।

সে হিসেবে আজ মঙ্গলবার ২২শে আগষ্ট ২০১৭ ইংরেজী তারিখে হিজরী যুলক্কা'আদাহ্ মাসের শেষ দিন।

যারা কুরবানী করার ইচ্ছা করেছেন তারা আজকের সন্ধ্যার পূর্বেই নখ, চুল ইত্যাদি কেটে নেবেন। কেননা, ১লা যুলহাজ্জাহ্ শুরু হবে যুলক্কা'আদাহর শেষ দিনের মাগরিব থেকে।

উপরের হিসাব মত 'আরাফাহর দিন হতে যাচ্ছে বৃহস্পতিবার ৩১শে আগষ্ট ২০১৭ এবং যথারীতি ৯ই যুলক্কা'আদাহ্ ১৪৩৮ হিজরী।

সহীহ্ সুন্নার বর্ণনামত যুলহাজ্জাহ্ মাসের প্রথম দশদিনের অনেক ফদ্বীলত রয়েছে।

তাই এ মাসের প্রথম ৯দিন অর্থাৎ ১ থেকে ৯ তারিখ পর্যন্ত সম্ভব হলে সবাই সওম সাধনা করবেন। যারা অক্ষম তারা অন্ততঃ ৯ তারিখ 'আরাফাহর দিন অবশ্যই সওম পালন করবেন।

১০ তারিখ যেহেতু ঈদ আর ঈদের দিনে সওম সাধনা নিষেধ, তাই সওম প্রথম ৯দিন।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

স্বদেশ নামের মানচিত্রটা

স্বদেশ নামের মানচিত্রটা এই তো সেদিন পেয়েছি

বুকে হাত দিয়ে আগলে রাখার শপথ যেদিন নিয়েছি,

রোদে জ্বলেছি, শীতে কেঁপেছি, রক্তে রেঙেছি মাটি

তবু কেবলি এপারে-ওপারে ইঁদুরের কাটাকাটি.....

-১৪ আগষ্ট ২০১৭, মদীনা মুনাওয়ারা, সউদী আরব।

আপনার রেটিং: None

@আমি আশ্রয় প্রার্থনা করছি...

                     পরিচ্ছন্ন পাঠের জন্য নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

বিএনপি সরকারের ব্যর্থতা (১৯৯১-১৯৯৬)- ২/২

খালেদা জিয়া সরকারের সূচনালগ্নে এ দেশের জনগণের
প্রত্যাশা ছিল বাংলাদেশ এবার হয়তো স্থায়ীভাবে রাজনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি পাবে। দেশে
সামরিক শাসনামলের সমাপ্তি ঘটায় এবার সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে। কিন্তু
অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার ফলে দেশে পুনরায় রাজনৈতিক অচলাবস্থাসহ বিভিন্ন ধরনের
সমস্যা দেখা দেয়। ঐ সব অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার উদ্ভব খালেদা জিয়া সরকারের ব্যর্থতারই
পরিচয় বহন করে।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

বিএনপি সরকারের ব্যর্থতা (১৯৯১-১৯৯৬)- ১/২

খালেদা জিয়া সরকারের সূচনালগ্নে জনগণের প্রত্যাশা
ছিল বাংলাদেশ এবার স্থায়ীভাবে রাজনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি পাবে। সামরিক শাসনামলের সমাপ্তি ঘটবে এবং সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত
হবে। কিন্তু অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার ফলে পুনরায় দেশে রাজনৈতিক অচলাবস্থাসহ
বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা যায়। এসব অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার উদ্ভব খালেদা জিয়া সরকারের
ব্যর্থতার পরিচয় বহন করে।

 

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

বর্ণচোরা ফেসবুক গ্রুপগুলোর আজব ও উদ্ভট নীতিমালা

ইদানীং কিছু ফেসবুক গ্রুপের মডারেটরগণ তাদের লক্ষ্য ও নীতিমালা হিসেবে নির্ধারণ করেছেন যে-

  • কেবল কৌতুক ও বিনোদনই তাদের লক্ষ্য।
  • গ্রুপে আস্তিক-নাস্তিক সকলে যোগদান ও পোস্ট করতে পারবেন।
  • আস্তিক বা নাস্তিক নির্বিশেষে কেউ কাউকে গালি দিতে পারবে না; তবে স্রষ্টা, ধর্ম ও ধর্মীয় মহাপুরুষগণ সম্পর্কে টিজ করতে পারবে।

দেখুন, কী চাতুর্যের সাথে নিজেদের আসল উদ্দেশ্য লুকানো হচ্ছে এবং নিজেদেরকে নিরপেক্ষ হিসেবে জাহির করা হচ্ছে! তাদের মূল লক্ষ্য হলো মানুষের ধর্মীয় বিশ্বাস নষ্ট করা, স্রষ্টার থেকে মানুষকে বিচ্ছিন্ন করা এবং স্রষ্টা ও তাঁর পয়গম্বরগণের প্রতি মানুষের আস্থা ও সম্মানবোধকে বিনষ্ট করা। কিন্তু তারা বলছে, নিছক কৌতুক করাই তাদের উদ্দেশ্য। জগতে কৌতুকের বিষয়ের তো আকাল পড়েছে যে, ধর্মকেই সকল কৌতুকের উৎস হিসেবে গ্রহণ করতে হবে।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3 (টি রেটিং)

নেশামুক্ত থাকুক তরুণ প্রজন্ম

মাদক ও নেশামুক্ত তরুন সমাজ দেশ ও জাতি গঠনের জন্য খুবই প্রয়োজন। সমাজ
মাদক মুক্ত হলে অনেক অপরাধ থাকবে না। তাই মাদকের বিরুদ্ধে সকলকে সোচ্চার হতে হবে।
মাদক দেশের চলমান উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করছে এবং আমাদের তরুণ প্রজন্মকে ধ্বংসের পথে
নিয়ে যাচ্ছে। তামাক থেকে দেশে যে পরিমাণ রাজস্ব আদায় হচ্ছে, ক্ষতির পরিমাণ তার
থেকে অনেক বেশি। তাই শুধুমাত্র আইন করে, ট্যাক্স বৃদ্ধি করে তামাকের ব্যবহার বন্ধ করা যাবে না। এজন্য চাই

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)
Syndicate content