সত্য বলা, চলা ও প্রচারই হোক বিসর্গের ভাষা...

এতো নাফরমানীর পরও আবার আবেদন নামঞ্জুরীর অভিযোগ:

আগেকার যুগের মুসলিমগন তাদের ব্যবসাপণ্য বা বিক্রিতব্য বিষয়ে কোন দোষক্রটি থাকলে তা ক্রেতাকে না জানিয়ে বিক্রি করতেননা। ত্রুটিযুক্ত জিনিস যদি ভুলবশত বিক্রি হয়েও যেতো তাহলে ক্রেতার বাড়ী গিয়ে এ ভুলের জন্য ক্ষমা চাওয়া কিংবা এর প্রতিবিধান বা কাফফারা আদায় ব্যতিরেকে তাদের ইমানদার দিল স্বস্তি পেতোনা।
একবার প্রখ্যাত ফিকাহবিদ ইবনু সিরীন একটি ছাগী বিক্রয় করলেন। ক্রেতাকে তিনি বললেন: ছাগীটির দোষ আছে, তা তোমাকে বলে আমি দায়িত্বমুক্ত হতে চাই। তাহলো: এটি খাবার সময় তার পা দিয়ে ঘাস এদিক ওদিক ছড়িয়ে দেয়।
আর একবার হাসান ইবনু সালিহ একটি ক্রীতদাসী বিক্রয় করলেন। ক্রেতাকে বললেন: মেয়েটি একদিন থুতুর সাথে রক্ত ফেলেছিল। তবে তা হয়েছিল মাত্র একদিন। আর এক তাবেঈ ভুলক্রমে এক ক্রেতার নিকট কমদামের কাপড় বেশীদামে বিক্রয় করেন। ভুলটি সংঘটিত হয় ঐ তাবেঈর কর্মচারীর মাধ্যমে। কিন্তু তথাপিও তিনি তিন দিন দু’রাতের পথ অতিক্রম করে ঐ ক্রেতার বাড়ীতে গিয়ে হাজির হন। ক্রেতাকে বললেন: হয় আপনি আপনার আদায়কৃত মুল্য অনুসারে বেশীদামী এ কাপড়টি গ্রহন করুন অথবা আপনার অতিরিক্তি অর্থ ফেরত নিন।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

জীবনের পথে....

মনের কথা বলার মানুষ আছে অনেক,
জায়গার
অপ্রতুলতাও নেই।
কিন্তু সেগুলো বোঝার ও

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 2 (টি রেটিং)

বাইতুল মাকদিস আসলে কার

বাইতুল মাকদিস আসলে কার..

আল্লাহর নাবী ইবরাহীম আলাইহিস সালামের বংশধারা দু’টি শাখায় বিভক্ত হয়। একটি হচ্ছে: নাবী ইসমাঈল আ: এর সন্তান সন্ততিবর্গ। তারা আরবের হিজায এলাকায় বসবাস করতেন। আর দ্বিতীয় শাখাটি হচ্ছে: নাবী ইসহাক আ: এর সন্তানবর্গের। এরা শাম (বর্তমান ফিলিস্তিন, সিরিয়া ও ইরাক) ও এর আশপাশ এলাকায় বসতি স্থাপন করে। এ শাখায় নাবী ইয়াকুব, নাবী ইউসুফ, নাবী আইয়ুব, নাবী যুল কিফল, নাবী ইউনুস, নাবী শুয়াইব, নাবী মুসা, নাবী হারুন, নাবী দাউদ, নাবী সুলাইমান, নাবী ইলিয়াস, নাবী যাকারিয়া, নাবী ইয়াহইয়া, নাবী ঈসা আলাইহিমুস সালাম প্রমুখ (এবং আরও অনেকে) জন্মগ্রহন করেন। এ শাখাটির মাধ্যমেই নাবী সুলাইমান আলাইহিস সালামের আমলে বাইতুল মাকদিস ইসলামী দাওয়াতের কেন্দ্রভুমির মযাদায় অধিষ্ঠিত হয়। দুনিয়াবাসীকে নেতৃত্ব দানের যোগ্যতা হারাবার পুবক্ষন পযন্ত বাইতূল মাকদিসই ছিল ইসলামী উম্মাহর কিবলা।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

ইরাকের আইএসের নেতাদের গণকবর আবিষ্কার

ইরাকের দিয়ালা প্রাদেশিক পরিষদের নিরাপত্তা কমিটি জানিয়েছে,
সেদেশের সালাহ আল-দীন প্রদেশে তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএস বা দায়েশের ৫০
জন নেতার গণকবরের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।

ইরাকের আইএসের নেতাদের গণকবর আবিষ্কার

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (টি রেটিং)

সৌদি আরবের ক্রোধের উত্তর দিলো আলজেরিয়া

আলজেরিয়ার একটি স্টেডিয়ামে সৌদি রাজার ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করার
জন্য সৌদি কর্তৃপক্ষ ক্ষুব্ধ হয়েছে। তবে আলজেরিয়ার সামাজিক নেটওয়ার্ক
ব্যবহারকারীরা সৌদি আরবের কর্তৃপক্ষের প্রতিক্রিয়ার উপযুক্ত উত্তর দিয়েছে।

সৌদি আরবের ক্রোধের উত্তর দিলো আলজেরিয়া

বার্তা সংস্থা ইকনা: আলজেরিয়ার রাজধানী আলজিয়ার্সে ফিলিস্তিনিদের
পক্ষে বিক্ষোভকারীদের ব্যবহৃত একটি ব্যঙ্গচিত্রে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে
সৌদি আরব।

সৌদি আরবের বাদশা সালমানের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের তুলনা করে ব্যঙ্গচিত্রটি করা হয়েছে।

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণার প্রতিবাদে গত শনিবার আলজিয়ার্সের
একটি স্টেডিয়ামে বিক্ষোভ কর্মসূচি আয়োজন করে আইন মেলিল্লা ফুটবল ক্লাব।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 2 (টি রেটিং)

মুসলিম রোগীকে ‘কৃষ্ণ কৃষ্ণ’ বলতে বাধ্য করলো ডাক্তার

অস্ত্রোপচারের আগে বেডে শুয়ে কৃষ্ণনাম নিতে হবে, না হলে অপারেশন
করবেন না চিকিৎসক। আর তাই প্রাণের ভয়ে শেষপর্যন্ত শ্রীকৃষ্ণের নাম নিতে
বাধ্য হলেন রোগী।

 
বার্তা সংস্থা ইকনা: শুনতে অবাক লাগলেও এমনই ঘটেছে ভারতের কর্নাটকের চিক্কাবাল্লাপুর জেলার একটি সরকারি হাসপাতালে।

অস্ত্রোপচারের আগে এক মুসলিম নারীকে দিয়ে জোর করে কৃষ্ণনাম জপানোর
অভিযোগ উঠেছে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। ইতোমধ্যে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন
ওই নারী। সোমবার এ সংক্রান্ত একটি খবর প্রকাশ করেছে দেশটির সংবাদ প্রতিদিন
পত্রিকা।

১২ ডিসেম্বর ওই হাসপাতালে বন্ধ্যাকরণ প্রকল্পে অস্ত্রোপচার করাতে গিয়েছিলেন নাসিমা বানু। সেখানেই তার সঙ্গে এই ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, আমি বেঙ্গালুরুতে থাকি। কিন্তু চিন্তামনিতে আমার আত্মীয়রা থাকে বলেই আমি সেখানে অস্ত্রোপচারের জন্য গিয়েছিলাম।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (টি রেটিং)

সৌদি রাজার প্রাসাদে ইয়েমেনি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

ইয়েমেনের জনপ্রিয় হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধারা সৌদি আরবের রাজধানী
রিয়াদে রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজের একটি প্রাসাদ লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র
হামলা করেছে।

সৌদি রাজার প্রাসাদে ইয়েমেনি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

 

বার্তা সংস্থা ইকনা: হুথি যোদ্ধাদের মুখপাত্র মুহাম্মাদ আবদুস সালাম
জানান, সৌদি রাজার সরকারি বাসভবন আল-ইয়ামামাহ প্রাসাদ লক্ষ্য করে বুরকান
এইচ-২ ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়েছে। ইয়েমেন থেকে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্রটিকে
প্রতিহত করা হয়েছে বলে সৌদি গণমাধ্যম দাবি করেছে। সৌদি গণমাধ্যমে আরো
বলেছে, এ পর্যন্ত কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায় নি।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 2 (টি রেটিং)

ইমাম জাফর সাদীকের (আ.) দৃষ্টিতে সর্বোত্তম পোশাক

ইমামতিধারার
৬ষ্ঠ ইমাম হযরত ইমাম জাফর সাদিক (আ.) থেকে মানব জীবনে সর্বোত্তম পোশাক
সম্পর্কে একটি হাদিস বর্ণিত হয়েছে। এ হাদীসে উল্লেখ করা হয়েছে যে, যে পোশাক
মানুষকে আল্লাহর স্মরণ থেকে বিরত রাখে না, সে পোশাক হচ্ছে সর্বোত্তম
পোশাক।


বার্তা
সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট:
পবিত্র কুরআনের ভাষায় মানুষের জন্য সর্বোত্তম
পোশাক হচ্ছে তাকওয়ার পোশাক; অর্থাৎ যে পোশাক মানুষকে আল্লাহর স্মরণ ও ভীতির
প্রতি উদ্বুদ্ধ করবে এবং মানুষকে নাফরমানি ও গাফিলতি থেকে রক্ষা করবে।
সর্বোত্তম
পোশাক ও পরিচ্ছদ হচ্ছে সেই পোশাক যা মানুষকে আল্লাহর স্মরণ থেকে মোটেও
গাফেল বা উদাসীন করে না। বরং মানুষকে স্মরণ করিয়ে দেয় যে, পোশাক বা পরিচ্ছদ
হচ্ছে এমন এক বস্তু যা মানুষ ও পশুর মধ্যে ব্যবধানের অন্যতম কারণ। অর্থাৎ
পোশাক পরিধান করা মানুষের উপর ফরজ বা মানুষের লজ্জাস্থানকে অন্যের দৃষ্টি

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 2 (টি রেটিং)

ইমাম মাহদীর(আ.) প্রতীক্ষাকারীরা ওয়াদা পালন করে

একটি সমাজের উন্নতির প্রধান বিষয় হচ্ছে সমাজের সবার মাঝে বিশ্বাস থাকবে। আর এমন সমাজের সবাই নিজেদের প্রতিশ্রুত রক্ষা ও পালন করে।


বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: সূরা মায়েদার প্রথম আয়াতে বলা হয়েছে-


يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آَمَنُوا
أَوْفُوا بِالْعُقُودِ أُحِلَّتْ لَكُمْ بَهِيمَةُ الْأَنْعَامِ إِلَّا مَا
يُتْلَى عَلَيْكُمْ غَيْرَ مُحِلِّي الصَّيْدِ وَأَنْتُمْ حُرُمٌ إِنَّ
اللَّهَ يَحْكُمُ مَا يُرِيدُ

হে বিশ্বাসিগণ! চুক্তিসমূহ রক্ষা কর; তোমাদের জন্য চতুষ্পদ গবাদি
পশুসমূহ বৈধ করা হল সেগুলো ছাড়া যা (বিধান) তোমাদের পাঠ করে শোনানো হচ্ছে,
তবে তোমরা ইহ্রাম অবস্থায় শিকার করাকে বৈধ জ্ঞান কর না; নিশ্চয় আল্লাহ যা
ইচ্ছা বিধান দান করেন।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (টি রেটিং)

ইমাম মাহদীর(আ.) যুগে মানুষ আর দুনিয়ার পিছনে ছুটবে না

ইমাম মাহদীর(আ.) যুগের একটি বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে মানুষ তখন আর দুনিয়ার পিছনে ছুটবে না। তখন সবাই নৈতিকতা ও আধ্যাত্মিকতার পিছনে ছুটবে।

ইমাম মাহদীর(আ.) যুগে মানুষ আর দুনিয়ার পিছনে ছুটবে না

বার্তা সংস্থা ইকনা'র রিপোর্ট: ইমাম মাহদীর যুগে মানুষের ভিতর থেকে
লোভ-লালসা চলে যাবে এবং সবাই তখন আল্লাহমুখী এবং পরোপকারী হবে। সবাই বেশী
বেশী ইবাদত-বন্দেগী ও আধ্যাত্মিকতার পিছনে ছুটবে।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 4 (টি রেটিং)
Syndicate content